আমরা লাইভে English বৃহস্পতিবার, জুন ১৭, ২০২১

আফগানিস্তানে বছরের প্রথম তিন মাসেই ১৮০০ বেসামরিক মানুষ হতাহত

270246_Anim-4

আফগানিস্তান যুদ্ধে বছরের প্রথম তিন মাসে প্রায় ১৮০০ বেসামরিক মানুষ হতাহত হয়েছে। তালেবানের হামলায় এবং তালেবানের বিরুদ্ধে সরকারি বাহিনীর অভিযানে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে। বুধবার প্রকাশিত জাতিসংঘের প্রতিবেদনে এমনটাই উঠে এসেছে। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

খবরে বলা হয়, আফগানিস্তানে চলছে শান্তি প্রক্রিয়া। কিন্তু এরইমধ্যে দেশজুড়ে বেড়েই চলেছে তালেবানের সহিংসতা। তাদের বলি হচ্ছে সাধারণ মানুষ। তালেবান দমন করতে গিয়ে সরকারি বাহিনীর হামলায়ও নিহত হচ্ছে বেসামরিক মানুষ।

কিন্তু শান্তি প্রক্রিয়ার কোনো অগ্রগতি নেই।

এদিকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, চুক্তি অনুযায়ী এপ্রিল মাসের মধ্যেই মার্কিন সেনাদের প্রত্যাহার করা হবে না। তালেবান হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছে, যুক্তরাষ্ট্র চুক্তি না মানলে মার্কিন সেনাদের ওপর হামলা চালাবে তারা। যুক্তরাষ্ট্রও জানিয়ে দিয়েছে, মার্কিন সেনাদের ওপর হামলা হলে তালেবানকে চরম প্রতিদান দিতে হবে।

জাতিসংঘের রিপোর্টে বলা হয়েছে, জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত আফগানিস্তানে ৫৭৩ বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছেন। এটি গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ২৯ শতাংশ বেশি। রিপোর্ট অনুযায়ী, বরাবরের মতোই তালেবান জঙ্গিদের হাতেই সবথেকে বেশি সাধারণ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। হতাহতের ঘটনার ৪৩.৫ শতাংশের জন্য দায়ি তালেবান। হতাহতের একটি বড় অংশের দায়ি আরেক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট। একটি বড় অংশ হতাহত হয়েছে দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলির সময়। এছাড়া, আফগান সরকারি বাহিনীর গুলিতে হতাহত হয়েছে ২৫ শতাংশ।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, নারী ও শিশুদের টার্গেট করে হামলার ঘটনা বেড়েছে। নারীর ওপরে হামলা বেড়েছে ৩৭ শতাংশ এবং শিশুর ওপর বেড়েছে ২৩ শতাংশ। গত বছরের আফগান মানবাধিকার কমিশনের হিসেব অনুযায়ী, ২০২০ সালে ৮ হাজার ৫০০ জন বেসামরিক মানুষ হতাহত হয়েছিল আফগানিস্তানে।