আমরা লাইভে English বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২১

আফগানিস্তানে আকস্মিক বন্যায় ১০০ নিহত

DIGEST-ENG-27-08-2020-Afg

আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলে ভারি বর্ষণের কারণে আকস্মিক বন্যায় ১০০ জনের বেশি মারা গেছে। আহতের সংখ্যা নির্দিষ্ট করে জানা না গেলেও কয়েকশ ছাড়িয়ে যাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

মৌসুমি বৃষ্টিতে বুধবার আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলীয় পারওয়ান প্রদেশের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়। ক্ষতিগ্রস্ত হয় প্রায় ৫০০ বাড়িঘর। আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলজুড়ে একাধিক স্থানে ব্যাপকভাবে ধস নেমেছে। 

প্রতি বছর ভারি বর্ষণের সঙ্গে ভূমিধস অনেক সময়ই আফগানিস্তানের প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলোর জন্য হুমকির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। 

গ্রীষ্মে মাঝেমধ্যেই আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলের পাশাপাশি আফগানিস্তানের পূর্ব অংশে ভারি বর্ষণ হয়। যার জেরে প্রতি বছর এ অঞ্চলগুলোতে অনেক মানুষ প্রাণ হারায়।

আফগান সরকারের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আকস্মিক বন্যায় আফগানিস্তানের উত্তর ও পূর্বাঞ্চলীয় এলাকায় অন্তত ১০০ জন নিহত হয়েছে। দুর্যোগে পারওয়ান প্রদেশের রাজধানী চারিকর শহরের বিস্তীর্ণ অংশ ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে।

পারওয়ানের মুখপাত্র ওয়াহিদা শাহকর গতকাল বুধবার বলেছেন, ভেঙে পড়া বাড়িগুলোর নিচে অনেক মানুষ এখনো চাপা পড়ে রয়েছে। ধ্বংসস্তূপ সরিয়ে উদ্ধারকাজ চলছে। ফলে হতাহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ পর্যন্ত শতাধিক মানুষকে আহত অবস্থায় ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

আফগানিস্তানের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা প্রতিমন্ত্রী গুলাম বাহাউদ্দিন জিলানি জানিয়েছেন, দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় পারওয়ান প্রদেশের কেন্দ্রীয় শহর চারিকর বন্যা কবলিত। শহরের স্থানীয় হাসপাতাল আংশিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। যে কারণে আহতের কাবুলের হাসপাতালগুলোতে স্থানান্তর করা হচ্ছে। প্রাদেশিক হাসপাতালের প্রধান আব্দুল কাশিম সাঙ্গিন জানান, নিহতদেরদের মধ্যে অনেক শিশুও রয়েছে। এ ছাড়া আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

আফগানিস্তানের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, গত মঙ্গলবার রাতভর এবং গতকাল বুধবার সকালে ভারি বৃষ্টিপাতের কারণে প্লাবিত হয় পারওয়ান ও ময়দান ওয়ারদাক প্রদেশের বিশাল অঞ্চল। বন্যার কারণে সৃষ্ট ভূমিধসে ধ্বংস হয়েছে এসব এলাকার হাজার হাজার ঘরবাড়ি।

প্রাদেশিক কর্তারা অসহায়ত্ব প্রকাশ করে বলেন, ঘটনার ব্যাপকতা এবং আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা এত বেশি যে তাদের কাছে সাহায্য পৌঁছনো প্রাদেশিক সরকারের ক্ষমতার বাইরে। তাই তাঁরা কেন্দ্রীয় সরকারের সহায়তার অপেক্ষায় রয়েছেন। 

আফগানিস্তানের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আহমদ তামিম আজিমি জানান, বন্যার কারণে পূর্ব ও উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশগুলোর মধ্যে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। মহাসড়কগুলো যান চলাচলের উপযোগী করে তুলতে যুদ্ধকালীন তত্পরতায় কাজ চলছে।