আমরা লাইভে English রবিবার, অক্টোবর ১৭, ২০২১

কাবুলে চীনা রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে তালেবান নেতার বৈঠক

prothomalo-bangla_2021-09_c8381f0c-190a-4370-8ef9-360e2c25eb83__leaoffice

কাবুলে নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠক করেছেন তালেবানের এক নেতা। তালেবানের এক মুখপাত্র এ কথা জানিয়েছেন। বার্তা সংস্থা এএনআই এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায়।

গতকাল সোমবার চীনা রাষ্ট্রদূত ওয়াং ইউয়ের সঙ্গে বৈঠক করেন কাতারে তালেবানের রাজনৈতিক কার্যালয়ের উপপ্রধান আবদুল সালাম হানাফি।

বৈঠক সম্পর্কে তালেবানের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাইম বলেন, গতকাল চীনা রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠক করেন আবদুল সালাম হানাফি। তাঁরা দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে আলোচনা করেছেন।

রাষ্ট্রদূত ওয়াং আফগানিস্তানে চীনের মানবিক সহায়তা অব্যাহত রাখার অঙ্গীকার করেন বলেও জানান তালেবানের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাইম।

চীনের গ্লোবাল টাইমস এক প্রতিবেদনে জানায়, চীন গতকাল আফগান ইস্যুতে তার অবস্থানের পুনরাবৃত্তি করেছে। একটি উন্মুক্ত, অন্তর্ভুক্তিমূলক ও ব্যাপকভিত্তিক প্রতিনিধিত্বমূলক সরকার গঠনে আফগানিস্তানকে সমর্থনের কথা ব্যক্ত করেছে চীন।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ওয়াং ওয়েবিন নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আফগানিস্তান ইস্যুতে চীনের অবস্থান সামঞ্জস্যপূর্ণ ও স্পষ্ট।

ওয়াং ওয়েবিন বলেন, ‘আমরা সব সময় আফগানিস্তানের সার্বভৌমত্ব, স্বাধীনতা ও আঞ্চলিক অখণ্ডতাকে শ্রদ্ধা করি। আফগান জনগণের স্বাধীনভাবে তাদের জাতীয় অবস্থার উপযোগী উন্নয়নের পথ বেছে নেওয়ার বিষয়কে আমরা সমর্থন করি।’

তালেবানের প্রধান মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, চীনের সঙ্গে অর্থনীতি, বাণিজ্য, অবকাঠামো নির্মাণ, সেচ, বিদ্যুৎ প্রকল্প, প্রাকৃতিক গ্যাস পাইপলাইনসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহযোগিতার প্রত্যাশার কথা ব্যক্ত করেছে আফগান তালেবান।

জাবিউল্লাহ মুজাহিদের উদ্ধৃতির বরাত দিয়ে চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে বলা হয়, তালেবানের এই মুখপাত্র বলেছেন, তালেবান বিশ্বের সঙ্গে সুসম্পর্ক স্থাপন করতে চায়। আর চীন তার একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। চীন একটি বড় অর্থনৈতিক শক্তি। আফগানিস্তান পুনর্গঠন ও উন্নয়নে চীনের সমর্থন প্রয়োজন।