আমরা লাইভে English বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ১৫, ২০২১

শীত আসছে: ভারতের জন্য এলএসিতে টিকে থাকার পরীক্ষা

REPORT-4-ENG-29-09-2020-LAC

ভারতে চলতি বছর দিওয়ালির পর শীত আরও তীব্র হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এদিকে, ভারত আর চীনের মধ্যে উত্তেজনা বাড়তে থাকায় লাইন অব অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলের পরিস্থিতির কোন পরিবর্তন হয়নি। 

এলএসিতে উত্তেজনা থাকলেও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে এবং ভারতের জন্য এটা টিকে থাকার একটা পরীক্ষায় রূপ নিতে যাচ্ছে। সূত্র ওয়ানইন্ডিয়াকে জানিয়েছে যে, দীর্ঘ শীত মওসুমের জন্য প্রস্তুত ভারতীয় সেনাবাহিনী। সূত্র জানিয়েছে, এটা হবে টিকে থাকার পরীক্ষা, তবে ভারত এলএসিতে সুবিধাজনক জায়গায় রয়েছে কারণ ১৯৮৪ সাল থেকে সালতোরো শৈলশিরার হিমবাহের উচ্চতায় অবস্থান করছে ভারতীয় সেনারা। 

পরবর্তী দফা সামরিক কমান্ডার পর্যায়ের আলোচনা শিগগিরই অনুষ্ঠিত হবে। সর্বশেষ আলোচনার পর দুই পক্ষ থেকে যৌথ বিবৃতি দেয়া হয়, নয়াদিল্লী যেটাকে ইতিবাচক হিসেবে বর্ণনা করেছে। 

সামরিক বাহিনীর সূত্র জানিয়েছে, ভারত পূর্ব লাদাখের উচ্চ এলাকাগুলোতে ভারি ট্যাঙ্ক, গোলাবারুদ, জ্বালানি, খাবার ও দরকারী শীতের জিনিসপত্র মজুদ রেখেছে যাতে কঠিন শীতের পুরো চার মাস সময়ে বাহিনীর যুদ্ধের সক্ষমতা ধরে রাখা যায়। 

তারা জানিয়েছেন, খোদ সেনাপ্রধান জেনারেল এম এম নারাভানে একদল শীর্ষ কমান্ডারের সহায়তা নিয়ে ব্যক্তিগতভাবে পরিকল্পনা এবং সেগুলো বাস্তবায়নের বিষয়টির নজরদারি করছেন। জুলাইয়ের মাঝামাঝি থেকে বিশাল এই মহড়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে এবং এখন সেটা প্রায় শেষ পর্যায়ে। 

সূত্র জানিয়েছে, লজিস্টিক্স অপারেশানের অংশ হিসেবে বেশ কতগুলো টি-৯০ ও টি-৭২ ট্যাঙ্ক, কামান এবং পদাতিক কমব্যাট যানবাহনকে চুশুল ও ডেমচোক সেক্টরসহ বিভিন্ন স্পর্শকাতর পয়েন্টগুলোতে মোতায়েন করা হয়েছে। 

এই অভিযানের অধীনে সেনাবাহিনী বিপুল পরিমাণে কাপড়, তাবু, খাবার সামগ্রি, যোগাযোগ সরঞ্জাম, জ্বালানি, হিটার এবং অন্যান্য সামগ্রী সরবরাহ করা হয়েছে। ১৬,০০০ ফুট উঁচুতে অগ্রবর্তী পোস্ট এবং পার্বত্য গিরিপথগুলো যে সব সেনা মোতায়েন করা হয়েছে, তাদের কাছে এই সরঞ্জামাদি পৌঁছানো হয়েছে। 

এক সিনিয়র কর্মকর্তা পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে পিটিআইকে বলেন, “স্বাধীনতার পরে লাদাখ পোস্টগুলোতে এত বিপুল পরিসরে কোন লজিস্টিক্স অভিযান চালানো হয়নি। এবারের মাত্রাটা বিশাল”।

চীনের যে কোন ধরণের তৎপরতার মোকাবেলায় পূর্ব লাদাখে সেনাবাহিনীর অতিরিক্ত তিন ডিভিশন সেনা মোতায়েন করেছে ভারত। অক্টোবর থেকে জানুয়ারি পর্যন্ত সময়ে ওই এলাকার তাপমাত্রা মাইনাস ৫ থেকে মাইনাস ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে উঠানামা করে। 

সূত্র জানিয়েছে ভারত ইউরোপের কয়েকটি দেশ থেকে শীতকালিন কাপড় ও সরঞ্জামাদি আমদানি করেছে এবং এরই মধ্যে সেগুলো পূর্ব লাদাখে সেনাদের কাছে সরবরাহ করা হয়েছে।