আমরা লাইভে English বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ১৫, ২০২১

পূর্ব লাদাখে ভারি ট্যাঙ্ক, সাঁজোয়া যান মোতায়েন করেছে ভারত

REPORT-3-ENG-28-09-2020-India (1)

পূর্ব লাদাখে লাইন অব অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলে (এলএসি) ভারত আর চীনের মধ্যে বিদ্যমান উত্তেজনা পরিস্থিতির মধ্যেই শনিবার টি-৯০ ও টি-৭২ ট্যাঙ্ক আর বিএমপি-২ ইনফ্যান্ট্রি কমব্যাট ভেহিকল মোতায়েন করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। পূর্ব লাদাখের চুমার-ডেমচোক এলাকায় এগুলো মোতায়েন করা হয়েছে। এলএসি বরাবর ১৪,০০০ ফুট উচ্চতায় সেখানে ভারতীয় সেনাবাহিনীর যে ফায়ার অ্যাণ্ড ফিউরি কর্পস রয়েছে, সেটা এই উচ্চতায় মোতায়েন বিশ্বের একমাত্র কর্পস। টি-৯০ হেভি ওয়েট, টি-৭২ এবং বিএমপি-২ ইনফ্যান্ট্রি কমব্যাট যানবাহনগুলো চরম শীতল আবহাওয়ায় প্রায় মাইনাস ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা এবং রক্ত জমাট করা বাতাসের মধ্যেও কাজ করতে পারে। 

এর প্রতিক্রিয়ায় চীন এলএসির তাদের অংশে হালকা টাইপ ১৫ ট্যাঙ্কগুলোকে তৈরি রেখেছে। ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেস অনলাইন এর আগে জানিয়েছে যে, ভারতীয় সেনাবাহিনী আর ভারতীয় বিমান বাহিনী চীনা পিএলএ’র যে কোন অভিযানের জবাব দেয়ার জন্য প্রস্তুত। অগ্রবর্তী বিমান ঘাঁটিতে ভারতীয় বিমান বাহিনী আগেই ফ্রন্টলাইন জঙ্গি বিমান, হেলিকপ্টার ও পরিবহন বিমান মোতায়েন করেছে। এই আকাশযানগুলো দিনে রাতে চীন ও পাকিস্তানের দুই ফ্রন্টে অভিযান চালানোর জন্য প্রস্তুত রয়েছে। 

রোহটাং টানেলের মধ্য দিয়ে টি-৯০ ট্যাঙ্ক, ভারতীয় সেনাবাহিনীর পদাতিক কমব্যাট যানবাহনগুলো এলএসির আরও কাছাকাছি চলে যাবে। 

ট্যাঙ্ক আর বিএমপি-২ মোতায়েন প্রসঙ্গে মেজর জেনারেল অরবিন্দ কাপুর বলেছেন, “ফায়ার অ্যাণ্ড ফিউরি ভারতীয় সেনাবাহিনী এবং সারা বিশ্বের একমাত্র বাহিনী যাদেরকে এই কঠিনতম পরিবেশে মোতায়েন করা হয়েছে”।

ফায়ার অ্যাণ্ড ফিউরি কর্পসের চিফ অব স্টাফ মেজর জেনারেল কাপুর আরও বলেন, “সরঞ্জামাদি আর ক্রুদের প্রস্তুতি নিশ্চিত করার জন্য যথেষ্ট ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এই পরিবেশে ভারি কামান, পদাতিক কমব্যাট যানবাহনগুলোর রক্ষণাবেক্ষণ একটা বড় চ্যালেঞ্জ”।

এলএসি বরাবর পুরো প্রস্তুতি গ্রহণের দায়িত্ব মূলত তার। তার মতে, লজিস্টিক্সের দিক থেকে দীর্ঘ কঠিন শীত পার করার জন্য ভারতীয় সেনাবাহিনী ভালোভাবেই প্রস্তুত। এক কর্মকর্তা বলেন, “বিশেষ শীতের কাপড় এবং অন্যান্য সুবিধাদি যেমন জ্বালানি, খুচরা যন্ত্রাদি দরকার মতো রয়েছে”।

দীর্ঘ সময়ের জন্য লড়াই করার এবং কয়েক মিনিটের মধ্যে এলএসিতে পৌঁছানোর সক্ষমতা তাদের রয়েছে। সূত্র জানিয়েছে, ২৯-৩০ আগস্ট চীনারা তাদের ট্যাঙ্কগুলো সক্রিয় করার পর থেকেই ভারত তাদের সক্ষমতা প্রকাশ করে আসছে। এই সময়টাতেই ভারতীয় সেনারা প্যাংগং লেকের দক্ষিণ তীরে বেশ কিছু উচ্চতায় পৌঁছেছিল।