আমরা লাইভে English বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ১৫, ২০২১

সিএজি রিপোর্টে বিতর্কের জেরে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে ‘অফসেট’ শর্ত ছেঁটে ফেলল ভারত

ISSUE-4-ENG-29-09-2020-India (1)

লক্ষ্য প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে আত্মনির্ভরতা। এবার বিদেশ থেকে সামরিক অস্ত্র কেনার ক্ষেত্রে অফসেট ক্লজ বা বিক্রি পরবর্তী চুক্তি প্রথা বাতিল করল ভারত। আন্তর্জাতিক চুক্তি বা তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে অস্ত্র কেনার ক্ষেত্রে এই অফসেট ক্লজের জন্য এতদিন বিদেশি ভেন্ডরকে চুক্তিমূল্যের একটা অংশ ভারতে বিনিয়োগ করতে হত। এই অফসেট ক্লজ তুলে দেওয়ার জেরে এবার থেকে আর সামরিক অস্ত্র কেনার ক্ষেত্রে বাধাবিপত্তির সম্মুখীন হতে হবে না। চুক্তির সরলীকরণের ক্ষেত্রেও এই সিদ্ধান্ত যুগান্তকারী বলছে কেন্দ্র। তবে সম্প্রতি ক্যাগ রিপোর্টে বিস্ফোরক তথ্য সামনে এসেছে। সেখানে বলা হয়েছে, রাফাল নির্মাণকারী সংস্থা দাসো এভিয়েশন কেন্দ্রের এই অফসেট ক্লজ মানছে না। সেই বিতর্কের জেরেই শর্ত বাতিল করে দিল কেন্দ্র।

জানা গেছে, সোমবার প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম অধিগ্রহণ পর্ষদের বৈঠকে সরকার এই নীতি নিয়েছে। নয়া নীতি গ্রহণের পরই প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং টুইট করেন, “প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের আত্মনির্ভর ভারত গড়া লক্ষ্যে দেশকে বিশ্ব উৎপাদনের হাব তৈরি করতে হবে। মেক ইন ইন্ডিয়া উদ্যোগের মধ্য দিয়ে স্বদেশি শিল্পগুলিকে মজবুত করতে সাহায্য করবে এই নয়া নীতি। নয়া বিদেশি বিনিয়োগ নীতির মাধ্যমে দেশে আমদানি-রফতানি শিল্পে জোয়ার আসবে। দেশীয় সংস্থার স্বার্থ সুরক্ষিত রেখেই আরও বেশি বিদেশি বিনিয়োগে উৎসাহ প্রদান করা হবে।”

এই প্রসঙ্গে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধিগ্রহণ কর্মকর্তা অপূর্ব চন্দ্র জানিয়েছেন, এতদিন অফসেট ক্লজের জন্য অত্যাধুনিক প্রযুক্তি আহামরি কিছু আমদানি হয়নি। বরং বিদেশি ভেন্ডরদের চুক্তির ক্ষেত্রে অতিরিক্ত খরচ বহন করতে হয়েছে। 

তিনি আরও জানিয়েছেন, এই নয়া সিদ্ধান্তের ফলে বর্তমান প্রতিরক্ষা চুক্তিগুলিতে কোনও প্রভাব পড়বে না। সরকারের স্বার্থ সুরক্ষিত থাকবে বলে তিনি আশ্বস্ত করেছেন। প্রসঙ্গত, ৩৬টি রাফাল যুদ্ধবিমান কেনার ক্ষেত্রে ফরাসি সরকারের সঙ্গে আন্তর্জাতিক চুক্তিতে ৫০ শতাংশ অফসেট ক্লজ অন্তর্ভুক্ত ছিল। নয়া প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম অধিগ্রহণ নীতি অক্টোবরের মাস পয়লা থেকে কার্যকর করবে কেন্দ্র।