আমরা লাইভে English বৃহস্পতিবার, মে ০৬, ২০২১

লাদাখে শান্তি ফেরার ইঙ্গিত, ভারতে আসতে পারেন চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং

Screenshot_1dg

লাদাখে শান্তি ফেরার ইঙ্গিত মিলেছে। আলোচনার মাধ্যমে সেনা প্রত্যাহার করছে ভারত-চিন উভয় পক্ষই। এবার এই আবহে ভারতে চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সম্ভাবনা দেখা দিল। চলতি বছরের শেষের দিকে ভারতে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে পরবর্তী ব্রিকস শীর্ষ সম্মেলন। সেই সম্মেলনেই যোগ দিতে ভারতে আসতে পারেন শি জিনপিং।

ভারতকে সমর্থন চিনের

ভারতকে সমর্থন চিনের চলতি বছরে ভারতে ব্রিকস সম্মেলন অনুষ্ঠিত করা পক্ষে চিনের সমর্থন রয়েছে। এই লক্ষ্যে বেজিংয়ের পক্ষ থেকে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে যে তারা ব্রিকস ভুক্ত পাঁচ দেশের মধ্যে সমন্ময় গড়ে তোলার লক্ষ্যে দিল্লির সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করতে রাজি।

ব্রিকস ওয়েবসাইট লঞ্চ করেছেন জয়শঙ্কর

ব্রিকস ওয়েবসাইট লঞ্চ করেছেন জয়শঙ্কর এর আগে ১৯ ফেব্রুয়ারি বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর ভারতের ব্রিকস ২০২১ ওয়েবসাইট লঞ্চ করেছিলেন। দিল্লির সুষমা স্বারাজ ভবনে অবস্থিত ব্রিকস সেক্রেটাকিয়েটে এই অনুষ্ঠান হয়। এরপরই চিনা বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র ওয়্যাং ওয়েনবিনকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, চিন ভারতের সভাপতিত্বকে সমর্থন জানায়।

কী বলছে চিনের বিদেশ মন্ত্রক

কী বলছে চিনের বিদেশ মন্ত্রক চিনা বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র ওয়্যাং ওয়েনবিন এদিন এই বিষয়ে আরও বলেন, 'চিন ব্রিকসকে খুবই গুরুত্ব সহকারে দেখে। ব্রিকসের সমন্ময় সৃষ্টি করার ক্ষমতা রয়েছে, যা চিন স্বীকার করে। চিন ব্রিকসের কৌশলগত অংশীদারিত্ব এবং এর মাধ্যমে সংহতি ও সহযোগিতার ক্ষেত্রে ইতিবাচক ভূমিকা পালম করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।'

লাদাখে ফিরছে শান্তি

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার পূর্ব লাদাখের প্যাংগং লেকের দুই তীর থেকে ডিসএনগেজমেন্ট অর্থাত্‍‌ সেনা সরানোর প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করেছে ভারত ও চিন। এরপর শনিবার সকাল দশটা নাগাদ দশম দফার বৈঠকে বসেন দু দেশের শীর্ষ কম্যান্ডার স্তরের সেনা কর্তারা। পরবর্তী পর্যায়ের ডিসএনগেজমেন্টের জন্য ডেপসাং, হট স্প্রিং ও গোগরাকে অ্যাজন্ডা করা হয়েছে। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার চিন সংলগ্ন মলডো এলাকায় চলে এই বৈঠক। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, সেনা সরানোর প্রক্রিয়া এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার বিষয়েই আলোচনায় জোর দেওয়া হয়েছে। কী উপায়ে তা করা হবে, তা নিয়ে আলোচনা করেছে উভয় পক্ষ।