আমরা লাইভে English সোমবার, আগস্ট ০২, ২০২১

টেক্সাসে পরিবারের ৪ জনকে খুন করে আত্মহত্যা করল ২ বাংলাদেশি ভাই

texas_family

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের ডালাস শহরের একটি বাড়ি থেকে পুলিশ বাংলাদেশি একটি পরিবারের ছয় সদস্যের লাশ উদ্ধার করেছে। স্থানীয় সময় সোমবার (৫ এপ্রিল) সকালে তাদের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। খবর নিউইয়র্ক পোস্টের।

পুলিশ জানায়, পরিবারের সদস্যের মধ্যে দুই ভাই ফারহান তোহিদ (১৯) ও তানভির তৌহিদ (২১)  প্রথমে অন্যদের হত্যা করেন এবং তারপর নিজেরা আত্মহত্যা করেন।

শনিবারেই হয়তো এ হত্যাযজ্ঞ হয়ে থাকবে তাদের বাড়িতে।

নিহতরা হলেন- আলতাফুন নেছা (৭৭), তার পুত্র তৌহিদুল ইসলাম (৫৪), তৌহিদুলের স্ত্রী আইরিন ইসলাম (৫৬), তাদের মেয়ে ফারবিন তৌহিদ এবং তাদের দুই ছেলে ফারহান তৌহিদ (১৯) ও তানভির তৌহিদ (২১)। আলতাফুন নেছা বাংলাদেশের পাবনা নিবাসী।

পুলিশ বলছে, তরুণ দুই ভাই নিজেরা আত্মহত্যার আগে পরিবারের অন্যান্যদের গুলি করে হত্যা করে। এ হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনা আগেই করে রাখা হয়েছিল।

ইনস্টাগ্রামের সূত্র ধরে ফারহানের এক বন্ধু পুলিশকে জানায়, ফারহান এবং তার ভাই এ বছরের ফেব্রুয়ারিতেই সিদ্ধান্ত নেয় যে, 'সবকিছু ঠিক করতে না পারলে' তারা তাদের পরিবারের সবাইকে এবং নিজেদের হত্যা করবে।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি সুইসাইড নোটও সংগ্রহ করেছে। 

অস্টিনে ইউনিভার্সিটি অফ টেক্সাস থেকে পড়াশোনা করা দুই ভাই হতাশায় ভুগছিলেন বলে সে নোট থেকে জানা যায়।

ফারহান সুইসাইড নোটে লিখেছে, "পরিকল্পনাটি সহজ। আমরা দুটি বন্দুক পাই যার একটি দিয়ে আমি আমার বোন এবং দাদীকে গুলি করি, অন্যটি দিয়ে আমার ভাই আমাদের বাবা-মা কে হত্যা করে"।

"আমি যদি কেবল আমাকেই মেরে ফেলতাম, তাহলে সেটি অত্যন্ত করুণ হত"।

নোটে আরও লেখা ছিল, "আমি আমার পরিবারকে ভালবাসি। আমি সত্যিই তাদের ভালবাসি। আর ঠিক এই জন্যেই আমি তাদের সবাইকে একসাথে মেরে ফেলার সিদ্ধান্ত নেই"।